Jokes, Humor, Fun

ব্যবসা

জ্ঞানী ছাগল

এক লোক কোরবানীর জন্য ছাগল কিনতে গেল এবং ইংরেজীতে কথা বলতে পারে এমন খুঁজিতেছে। অনেক খোজাখুজি করেও পেলোনা। অবশেষে এক চালাক ছাগল বিক্রেতা ছাগল ক্রেতাকে বলল,ভাই-আমার কাছে ইংরেজীতে কথা বলতে পারে এমন একটা ছাগল আছে।

ক্রেতাঃ ঠিক আছে, আমাকে আগে ইংরেজীতে কথা বলিয়ে দেখান।

ছাগল বিক্রেতাঃ ছাগলের পিঠে একটা থাপ্পর দিয়ে ছাগলকে জিজ্ঞাসা করলো - "এই ছাগল,বল দেখি--ইংরেজী এপ্রিল মাসের পরে কী মাস?"

ছাগলঃ মে......

ছাগল বিক্রেতা আবার ছাগলের ফিঠে একটা থাপ্পর দিয়ে ছাগলকে জিজ্ঞাসা করলো- "এই ছাগল,বল দেখি--ইংরেজী জুন মাসের আগে কী মাস?"

ছাগল:-মে......!!!!

রেজর

এক লোক দোকান থেকে রেজার কিনে বাসায় গিয়ে সেভ করতে গিয়ে দেখে রেজারটা ভাল কাজ করছে না।

লোকটা দোকানদারের কাছে গিয়ে অভিযোগ করলো- ভাই আপনি আমাকে কী একটা রেজার দিলেন যা ভাল নয়, এইটা দিয়ে তো দাড়ি/গোফ কাটা যায় না।

দোকানদারঃ আপনি কী বলছেন ভাই, আপনাকে রেজারটা দেওয়ার আগে আমি ৩ বার দাড়ি সেভ করে দেখেছি 'এটা তো চমৎকার কাজ করে।' আর এখন আপনি বলছেন রেজারটা ভাল নয়, এটা কি বিশ্বাস করা যায় না!

ইনকামট্যাক্স

তেলের দোকানে ইনকামটেক্সর লোক রেইড দিতে পারে এমন আশংকায় এক তেল ব্যবসায়ী তার কর্মচারীকে ডেকে বলল-- ৩০ টিন তেল মাটির নীচে লুকিয়ে রাখতে ।

২ ঘন্টা পরে কর্মচারী এসে তেল ব্যবসায়ীকে বলল, স্যার ! ৩০ টিন তেল তো মাটির নীচে লুকিয়ে ফলেছি, এখন তেলের খালি টিনগুলো কোথায় রাখবো!!!!! 

মালিকের হুকুম

মালিকঃ আমি বাইরে যাচ্ছি, যদি কোনও ক্রেতা আসে তাহলে বলবে, সোনার মূল্য দ্বিগুণ।
কর্মচারীঃ ঠিক আছে।
কিছুক্ষণ পর মালিক এসে কর্মচারীকে জিজ্ঞেস করল, আমি যেমন বলেছিলাম তেমন করেছ।
কর্মচারীঃ হ্যাঁ, এক লোক সোনা বিক্রি করতে এসেছিল। সে সোনার দাম ৫০০ টাকা চাইল। আমি বললাম, এক হাজার টাকার এক টাকাও কম দেব না। আমার মালিকের হুকুম।

১০০ বছর বাঁচবেন

জ্যোতিষী : আপনি নিশ্চিত ১০০ বছর বাঁচবেন।
ভদ্রলোক : যদি এর আগে মরে যাই?
জ্যোতিষী : তাহলে মূল্য ফেরত নিয়ে আমায় জুতোপেটা করবেন!

ঠকবেন কেন?

একটি দোকানের সাইনবোর্ডে লেখা : "শুধু শুধু অন্য দোকানে গিয়ে ঠকবেন কেন? এখানে আসুন।"

প্রভুভক্ত কবুতর

কবুতর বিক্রেতা : ভাইজান, এই কবুতরগুলো কিনুন! খুবই প্রভুভক্ত।
ক্রেতা : কী করে বুঝলে যে প্রভুভক্ত?
বিক্রেতা : আমি যতবার এগুলো বিক্রি করেছি ততবারই আমার কাছে ফিরে এসেছে।

পচা আটা, পচা ডিম

মালিক : আচ্ছা, দোকানে যে পচা ঘি ছিল সেটা কে কিনেছে?
কর্মচারী : সফিক সাহেব।
মালিক : পচা আটা, পচা ডিম আর মেয়াদোত্তীর্ণ নকল সেমাই?
কর্মচারী : সেগুলিও সফিক সাহেবই নিয়েছেন।
মালিক : এ্যাঁ!!
কর্মচারী : কেন! কী হয়েছে?
মালিক : তুই করেছিস কী? আরে, আজ তো সফিক সাহেবের বাসাতেই আমার দাওয়াত!!

ফার্নিচার বিক্রি

-তা তোমার বাবা কী করেন?
-ফার্নিচার বিক্রি করেন?
-বাহ্‌, খুব ভালো। তা বিক্রি-টিক্রি হয়?
-হয় না মানে! ঘরের খাট ছাড়া সব বিক্রি হয়ে গেছে!